এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরাও পাঁচ শতাংশ হারে ‘বিশেষ সুবিধা’ পাবেন

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের পাশাপাশি সারা দেশের এমপিওভুক্ত শিক্ষক কর্মচারীরাও জুলাই থেকে মূল বেতনের পাঁচ শতাংশ হারে ‘বিশেষ সুবিধা’ (প্রণোদনা) পাবেন। আজ মঙ্গলবার অর্থ মন্ত্রণালয়ের এক আদেশে এই সিদ্ধান্তের কথা জানানো হয়। অর্থ মন্ত্রণালয়ের এ আদেশটি শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইটেও দেওয়া হয়েছে। আদেশে বলা হয়, প্রাপ্য বেতনের পাঁচ শতাংশ হারে, তবে তা এক হাজার টাকার কম নয়।

বেসরকারি হলেও এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা সরকার থেকে মাসে মূল বেতন ও কিছু ভাতা পান। সরকার ঘোষিত বৈশাখী ভাতা এবং বার্ষিক বেতন বৃদ্ধির (ইনক্রিমেন্ট) সুবিধাও তাঁরা পান। গত মাসে জাতীয় সংসদে সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীদের প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণার পর থেকে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীরা এ সুবিধা পাবেন কি না তা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। অবশেষে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারীদেরও এই সুবিধা দেওয়ার ঘোষণা দিল সরকার। এর ফলে স্বাভাবিকভাবেই খুশি শিক্ষকেরা।

জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মাধ্যমিক শিক্ষা জাতীয়করণের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষকেরাও সরকারের এ সিদ্ধান্তে খুশি। আন্দোলনকারী শিক্ষক সংগঠন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক শেখ কাওসার আহমেদ প্রথম আলোকে বলেন, ৫ শতাংশ হারে বিশেষ সুবিধা দেওয়ার ঘোষণায় তাঁরা সরকারকে ধন্যবাদ দিয়েছেন। অবশ্য, জাতীয়করণের দাবিতে তাঁদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।

শিক্ষা বিভাগ সূত্রে জানা যায়, সারা দেশে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী আছেন সাড়ে পাঁচ লাখের মতো। এর মধ্যে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) আওতায় এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী আছেন ৩ লাখ ৬৬ হাজারের বেশি। মাদ্রাসা শিক্ষা অধিদপ্তরের আওতায় এমপিওভুক্ত মাদ্রাসার শিক্ষক-কর্মচারী আছেন ১ লাখ ৬৫ হাজারের মতো। আর কারিগরিতে এমপিওভুক্ত শিক্ষক-কর্মচারী আছেন ২০ হাজারের বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *