প্রাথমিক বিদ্যালয় শুমারির তথ্য সংগ্রহের সময় বাড়লো

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বার্ষিক শুমারির তথ্য সংগ্রহের সময়সীমা বাড়ানো হয়েছে। এতে আগামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত তথ্য দেওয়া যাবে। এ সময়ের মধ্যে অবশ্যই প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে অনলাইন সফটওয়্যারে তথ্য আপলোড করতে হবে।

সোমবার (২৪ জুলাই) প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক (পরিবীক্ষণ ও মূল্যায়ন) খন্দকার দীন মোহাম্মদের সই করা আদেশে এ তথ্য জানানো হয়। বিষয়টি অতি জরুরি বলেও এতে উল্লেখ করা হয়।

আদেশে বলা হয়, বার্ষিক প্রাথমিক বিদ্যালয় শুমারি (এপিএসসি)-২০২৩ এর তথ্য সংগ্রহের জন্য প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের ওয়েবসাইটে অনলাইন সফটওয়্যারে তথ্য আপলোডের সময়সীমা ছিল গত ২০ জুলাই। নির্ধারিত সময়ের মধ্যে অনেকে সরকারি এবং বেসরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক বিদ্যালয়ের তথ্য আপলোড করেননি এবং সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারাও ডাটা অনুমোদন করেননি। প্রধান শিক্ষক এবং সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তারা যথাযথভাবে দায়িত্ব পালন না করায় মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী- ২০২৩ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে শুমারির প্রতিবেদন প্রণয়ন কঠিন হয়ে পড়বে।

এতে আরও বলা হয়, এরইমধ্যে বিভিন্ন বিদ্যালয়ের আপলোড করা কিছু তথ্য প্রকৃত সংখ্যার সঙ্গে গরমিল রয়েছে। যেমন- শিক্ষার্থী সংখ্যা, বিশেষ চাহিদাসম্পন্ন শিক্ষার্থীর বিবরণ ও বিদ্যালয়ের বিভিন্ন তথ্য। তাই আগের আপলোড করা তথ্য সংশোধনের প্রয়োজন থাকলে তা করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে সঠিক ও নির্ভুল তথ্য আপলোড করতে হবে।

এমতাবস্থায়, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী- যথাসময়ে প্রতিবেদন প্রণয়নের লক্ষ্যে আগামী ৩০ জুলাইয়ের মধ্যে আবশ্যিকভাবে সঠিক ও নির্ভুলভাবে তথ্য আপলোড ও সহকারী উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের অনুমোদন নিশ্চিত করতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হলো।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *